You are here
Home > Entertainment > Hollywood > বিখ্যাত সিনেমাগুলোর অন্তরালে বিস্ময়কর সত্য, যা আপনি আগে জানতেন না!

বিখ্যাত সিনেমাগুলোর অন্তরালে বিস্ময়কর সত্য, যা আপনি আগে জানতেন না!

বিখ্যাত সিনেমাগুলোর অন্তরালে বিস্ময়কর সত্য, যা আপনি আগে জানতেন না!
বিখ্যাত সিনেমাগুলোর অন্তরালে বিস্ময়কর সত্য, যা আপনি আগে জানতেন না!

সিনেমার পর্দায় আমরা যা দেখি, তা অনেক মানুষের মেধা-শ্রম-ঘামের ফসল। অনেক ঘটনা-র্দুঘটনার ভেতর দিয়ে নির্মান হয় একটি সিনেমা। তাতে থাকে অনেক মানুষের ত্যাগ-তিতিক্ষা। সিনেমা নির্মানের পেছনের খবরগুলো আমরা খুব একটা জানি না। আসুন জেনে নেই বিখ্যাত কয়েকটি সিনেমার পর্দার পেছনের বিস্ময়কর কিছু তথ্য। যেগুলো হয়তো সিনেমাগুলো সম্পর্কে আপনার ধারণাই পাল্টে দেবে!

১। ক্রিশ্চিয়ান বেইল ‘The Machinist’সিনেমার জন্য প্রায় মরতে বসেছিলেন:
আপনারা নিশ্চয়ই দেখে অবাক হয়েছেন ‘The Machinist’সিনেমায় ক্রিশ্চিয়ান বেইলের লিকলিকে শরীর দেখে। হ্যাঁ, এই সিনেমার জন্য তাকে শরীর থেকে ঝেরে ফেলতে হয়েছে ৩০ কেজি ওজন। সে আরো ওজন কমাতে চেয়েছিলো। কিন্তু তার স্বাস্থ্য গবেষকরা তাকে সাবধান করে দেয় এই বলে যে, এই মাত্রা অতিক্রম করলে তার মৃত্যু ঘটতে পারে।

২। The Shining সিনেমার ৩০ সেকেণ্ডর একটি দৃশ্য তৈরি করতে একবছর সময় লেগেছিলো:
স্টেইনলি কুবরিক বিখ্যাত নির্মাতাতো আর এমনি এমনি হননি। তাঁর সবকিছু চাই নিঁখুত। দ্য সাইনিং মুভির ঘর ভেসে যাচ্ছে রক্তের ধারায় ৩০ সেকেণ্ডের এই দৃশ্যটি ১৪৮ টেকে নেওয়া হলেও দৃশ্যটি সম্পাদনার পর সিনেমায় যুক্ত হতে লেগে গিয়েছিলো দীর্ঘ একবছর সময়।

৩। The Wizard of Oz (১৯৩৯) সিনেমায় একটা কুকুরের পারিশ্রমিক ছিলো মানুষের পারিশ্রমিকের চেয়েও বেশি:
The Wizard of Oz (১৯৩৯) সিনেমাটি চমক সৃষ্টি করেছিলো হলিউডে। এতে অভিনয় করেছে অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী বিভিন্ন চরিত্রে। একটা কুকুরও ছিলো। কুকুরটির সাপ্তাহিক পারিশ্রমিক ছিলো ১২৫ মার্কিন ডলার যেখানে অনেক কর্মী-অভিনেতা পারিশ্রমিক হিসেবে পেয়েছে ৫০ মার্কিন ডলার।

৪। ‘Old Boy’মুভির জন্য খেতে হয়েছিলো নিষিদ্ধ খাবার:
বৌদ্ধধর্ম অনুসারে যেখানে জীব হত্যা মহাপাপ। সেখানে জীবন্ত কোনকিছু খাওয়াতো একেবারেই নিষিদ্ধ। কিন্তু বৌদ্ধধর্ম অনুসারী Choi Min-sik সিনেমার খাতিরে চার-চারটি জীবন্ত অক্টোপাস খেয়ে ফেলেছিলো দৃশ্যটি ধারণ শেষ না হওয়া পর্যন্ত।

৫। ‘দ্য লর্ড অব রিংস’ সিনেমার শ্যুটিঙের সময় প্রায় মরতে বসেছিলো এক অভিনেতা:
যুদ্ধদৃশ্য ধারণ করার সময় সত্যিসত্যি একটি ধারালো অস্ত্র এক অভিনেতার হাত ফসকে আকাশে উঠে যায়। তখন মাঠভর্তি মানুষের যে কারো শরীরে বিঁধে যেতে পারতো ধারালো অস্ত্রটি। কিন্তু সৌভাগ্যের বিষয় এতে কেউ আহত হয়নি।

৬। Willy Wonka And The Chocolate Factory সিনেমার উম্পা-লুম্পারা:
এই সিনেমার একটি দৃশ্যে একই রকম অনেকগুলো খর্বাকৃতির মানুষ থাকে, যারা গান গায় এবং নাচে। এখনকার সময়ের মতো তখন স্পেশ্যাল ইফেক্ট ছিলো না। ছিলো না কম্পিউটারের কারসাজি। তাই সমগ্র ইউরোপ খুঁজে বের করে আনা হয় খর্বাকৃতির মানুষগুলোকে। মেকাপ দিয়ে এক রকম দেখতে তৈরি করা গেলেও ওদের কথা বলার ভঙ্গি এক করা যায়নি। কারণ তাদের ভাষা ছিলো ভিন্ন।

৭। STALKER সিনেমার অনেকেই ক্যান্সার আক্রান্ত হয়েছিলেন:
সিনেমাটির একটি দৃশ্য ধারণ করা হয়েছিলো কোন ক্যামিক্যাল ইন্ড্রাস্টির ‘নো ম্যান যোন’-এ। মানুষের সেখানে প্রবেশ নিষেধ ছিলো। কিন্তু সেখানে এই সিনেমার দৃশ্য ধারণ করার সময়। ক্যামিকেলের বিচিত্র রংয়ের পানি শরীরে লাগিয়ে তারা শ্যুটিং করে। কিন্তু ভয়ানক বিষয় হচ্ছে তারা সকলেই ক্যান্সার আক্রান্ত হয়।

Leave a Reply

Top