You are here
Home > Entertainment > Bollywood > শ্বশুরবাড়ির ভাগ্য নিয়ে গর্বিত ও জনপ্রিয় যেসব বলিউড নায়কেরা

শ্বশুরবাড়ির ভাগ্য নিয়ে গর্বিত ও জনপ্রিয় যেসব বলিউড নায়কেরা

শ্বশুরবাড়ির ভাগ্য নিয়ে গর্বিত ও জনপ্রিয় যেসব বলিউড নায়কেরা

বলিউড পাড়ার প্রত্যেকটি নায়কেরই আছে কিছু নিজস্বতা। নিজেদের কিছু স্বকীয় গুণাবলিই তাদেরকে শুরু থেকে সাহায্য করে এসেছে সবার মন জয় করে নিতে। আর তাইতো কেবল আমির খানকেই মি: পারফেকশনিস্ট আর শাহরুখ খানকেই কিং খান বলে ডাকা হয়। এদিকে বডি ফিটনেসের জন্য সালমান খান এবং নাচের তালে সবচাইতে ভালো পা মেলাবার জন্য হৃত্বিক রোশনকেই গুরু মানে সাধারণ মানুষ। কিন্তু এসব নিজস্বতা থাকা সত্ত্বেও আরেকটি কারণে বলিউডের কিছু নায়ক জনপ্রিয়তা ও পরিচিতির দৌড়ে এগিয়ে আছেন অন্য সবার চাইতে। আর সেটি হল শ্বশুরবাড়ির ভাগ্য। হ্যাঁ, বলিউডের এমন অনেক নায়ক আছেন যারা কেবল নিজেদের নামেই পরিচিত নন। পরিচিত তাদের বিখ্যাত শ্বশুর-শাশুড়ির নামেও। আর বলিউডের এমনকিছু ভাগ্যবান “তারকা জামাই”-দের নিয়ে আমাদের আজকের এই ফিচার।

১. অক্ষয় কুমার-

বিয়ের আগে শীল্পা শেঠি, আয়েশা ঝুলখা এবং রাভিনা ট্যান্ডনসহ আরো নামকরা অনেক নায়িকাদের সাথে ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে তুললেও শেষকালে অক্ষয় বিয়ে করেন বিখ্যাত তরকা দম্পতি রাজেশ খান্না ও ডিম্পল কাপাডিয়ার মেয়ে টুইঙ্কেল খান্নাকে। ২০০১ সালে বিয়ের পিঁড়িতে বসা অক্ষয় তার এক ইন্টারভিউ এ বলেন- আমার ভাগ্য দেখুন! আমি যাকে আদর্শ মানতাম তার মেয়েকেই বিয়ে করেছি। আমি এখনো এটা বিশ্বাস করতে পারছিনা।

২. ধানুশ-

রজনীকান্তের মেয়ে ঐশ্বরিয়াকে বিয়ে করার পর একরকম তারকাই হয়ে যান সবার কাছে এই নবাগত তামিল নায়ক। তবে বর্তমানে বলিউডে তার ছবি রানঝানার সাফল্যের পর শুধু কলিউড নয়, বলিউডের বেশ ভালো অবস্থান বানিয়ে ফেলেছেন তিনি নিজে জন্য। প্রথমে যদিও ভাবা হয়েছিল এটা প্রেমের বিয়ে, পরে ধানুশ জানান যে এটা পারিবারিক বিয়ে। এর আগে তার এবং ঐশ্বরিয়ার মধ্যে কোনধরনের ভালোবাসার সম্পর্ক ছিলনা।

৩. সাইফ আলী খান-

প্রথম স্ত্রী অমৃতা সিং এর সাথে ১৩ বছরের বিয়ের সম্পর্ক ভেঙে যাবার পর সাইফ আলী খান ভালোবেসে বিয়ে করেন বলিউডের কাপুর পরিবারের বিখ্যাত দম্পতি রনধির কাপুর ও ববিতার ছোট মেয়ে কারিনা কাপুরকে। আর হয়ে যান ঐতিহ্যবাহী কাপুর পরিবারের জামাই।

৪. অজয় দেবগন-

চার বছরের ভালোবাসার সম্পর্কের পর ১৯৯৯ সালে অজয় দেবগন বিয়ে করেন বলিউডের তখনকার ড্রিম গার্ল তনুজা ও সমু মুখার্জীর মেয়ে কাজলকে। নিজের বিয়ে নিয়ে অজয় বলেন- আমরা কেউ কাউকে কখনো ভালোবাসি বলিনি। প্রপোজালের মতন কিছুও হয়নি আমাদের মধ্যে। আমরা একে অন্যের সাথে বেড়ে উঠেছি। বিয়ের কথাও কখনো বলা হয়নি, যদিও জানতাম যে ওটা হবে।

৫. হৃত্বিক রোশন-

টিপু সুলতান খ্যাত নায়ক সঞ্জয় খানের মেয়ে সুজানের সাথে হৃত্বিকের ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে ওঠে ছবিতে নাম লেখানোর আগেই। মাঝখানে হৃত্বিকের জীবনে কারিনা কাপুর আসলেও ২০০০ সালে সুজানের সাথে বিয়ের পর সেই সম্পর্ক ভেঙে যায়।

৬. ফারদীন খান-

বিখ্যাত অভিনেতা ফিরোজ খানের ছেলে ফারদীন খান যেনতেন কারো না, হিন্দী ছবির রুপালী তারকা মুমতাজের মেয়ের জামাই। ছোটবেলা থেকেই নাতাশা আর ফাদীনের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে উঠলেও সেটার পরিণতি হয় অনেক পরে। দুই পরিবারের সম্মতিতে এই তারকাপরিবারের ছেলে-মেয়েরা বিয়ে করেন ২০০৫ সালে।

৭. কুমার গৌরব-

৬০ এর দশকের সুপারস্টার রাজেন্দ্র কুমারের ছেলে কুমার গৌরব বিখ্যাত তারকা দম্পতি সুনীল দত্ত ও নার্গিসের মেয়ে নম্রদা দত্তের সাথে ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে তোলেন এবং খুব তাড়াতাড়িই বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন।

Leave a Reply

Top